এই মাত্র পাওয়া :

হরতাল ডেকে নিরাপদ অবস্থানে বিএনপি নেতারা


অনলাইন ডেস্ক প্রকাশের সময় :২ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ৩:১২ : অপরাহ্ণ

ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ এনে ফল প্রত্যাখ্যান করে হরতাল ডাকলেও রাস্তায় নামেননি বিএনপির নেতাকর্মীরা। সকালে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আসেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।কার্যালয়ের সামনের ফুটপাতে নিরাপদ দূরত্বে সকাল থেকে চেয়ারে বসে থাকতে দেখা যায় দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীকে। তাদের সঙ্গে ছিলেন শতাধিক নেতাকর্মী। রবিবার (২ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে ১০টার দিকে নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে এমন দৃশ্য দেখা গেছে। এর বাইরে হরতাল সফল করতে রাজপথে বিএনপির পক্ষে কোনও মিছিল বা পথসভা করতে দেখা যায়নি।

ফুটপাতে চেয়ারে আরও বসেছিলেন দলটির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম,নির্বাহী কমিটির সদস্য নিপুণ রায় চৌধুরী ও মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহম।

ঢাকা সিটির নির্বাচন নিয়ে এই হরতাল ডাকা হলেও মাঠে দেখা যায়নি উত্তর সিটির মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালকে। সকাল সাড়ে ১১টার দিকে দলীয় কার্যালয়ের সামনে আসেন ইশরাক হোসেন। এছাড়া, সিটি নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থীদের কাউকেই হরতালের মাঠে দেখা যায়নি।

তবে হরতাল সফল করতে নয়াপল্টন কার্যালয়ের সামনে ফুটপাতে দাঁড়িয়ে সকাল থেকে বিরতিহীনভাবে বিভিন্ন স্লোগান দিয়ে যাচ্ছেন বিএনপিসহ অঙ্গ সংগঠনের অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী। তারা কারাবন্দি দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবির পাশাপাশি হরতাল চলছে-চলবে, ভোট চোরের নির্বাচন, প্রহসনের নির্বাচন মানি না মানবো না,সহ বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছেন।

বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আপনারা দেখছেন পুলিশ কীভাবে আমাদের বেস্টনি দিয়ে ঘিরে রেখেছে। তারপরও আমরা হরতালে সমর্থনে অবস্থান নিয়েছি।’

পল্টনে বিএনপির অফিসের সামনে নেতাকর্মীরা বসে স্লোগান দিলেও এই সড়কেই স্বাভাবিক ও নিরবচ্ছিন্নভাবে যানবাহনের চলাচল করছে।

এদিকে, বিএনপির কার্যালয়ের সামনে দলের নেতাকর্মীদের তুলনায় বেশি পুলিশ রয়েছে। রাস্তার একপাশে লম্বা সারি করে পুলিশ সদস্যদের দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়।

এদিকে বিএনপি অফিসের সামনে দলটির নেতাকর্মীদের অবস্থান কর্মসূচি বন্ধের অনুরোধ করেছে পুলিশ। যদিও নেতাকর্মীরা পুলিশকে বলেছে যে, এখানে তাদের উপস্থিতি পূর্ব নির্ধারিত কোনও কর্মসূচি নয়। এরপর পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সবাইকে চলে যেতে বলেন।

মতিঝিল বিভাগের মতিঝিল জোনের সিনিয়র সহকারী কমিশনার (এসি) জাহিদুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, ‘যেহেতু তাদের কোনও সুনির্দিষ্ট কর্মসূচি নেই। তাই আমরা তাদেরকে আধাঘণ্টা সময় দিয়েছি চলে যাওয়ার জন্য। তারাও বলেছে, খুব দ্রুত চলে যাবেন।’

প্রসঙ্গত, শনিবার (১ ফেব্রুয়ারি) রাতে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ফল প্রত্যাখ্যান করে রবিবার ঢাকায় সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ঘোষণা করেন। দেশবাসীকে এই হরতালে অংশ নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

ট্যাগ :

আরো সংবাদ



আর্কাইভ
February 2020
M T W T F S S
« Jan    
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031
আলোচিত খবর

error: কি ব্যাপার মামা !!