শিরোনাম: সাংবাদিক এর উপর হামলায় গ্রেফতার ১ খেলোয়াড় সমিতি গোল্ডকাপঃ শেষ মুহুর্তে ফাইনাল নিশ্চিত করলো ফ্রেন্ডস ক্লাব অব বান্দরবান খেলোয়াড় সমিতি গোল্ডকাপঃ নাটকীয় জয় দিয়ে প্রথম ফাইনালিস্ট লোহাগাড়া যুব ফটবল একাদশ দুর্নীতির বিরুদ্ধে সচেতনতা তৈরিতে শিক্ষার্থীদের বিতর্ক প্রতিযোগিতা দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনঃ বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগ এর একক প্রার্থী বীর বাহাদুর উশৈসিং খেলোয়াড় সমিতি গোল্ডকাপঃ চমকে দিলো জিটিএল কালাঘাটা ফুটবল দল বান্দরবানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জুলিও কুরি শান্তি পদক প্রাপ্তির ৫০ বছর পূর্তি উদযাপিত বান্দরবানে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করলেন নবাগত রিজিয়ন কমান্ডার

লামায় প্রতিপক্ষের হামলায় শিকার হয়ে হাসপাতালে


প্রকাশের সময় :১০ জুলাই, ২০১৭ ১২:২৭ : পূর্বাহ্ণ 389 Views

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, লামা (বান্দরবান) প্রতিনিধিঃ-বান্দরবানের লামার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের বনপুর এলাকায় মোঃদিলদার (৪৮) ও তার সঙ্গীদের হামলার শিকার হয়ে হাসপাতালে মৃত্যু সাথে পাঞ্জা লড়ছে মোঃশাহ আলম প্রকাশ শাহজাহান (৪০)।শাহ আলম বনপুর এলাকার মৃত নূর হোসেন মজুমদারের ছেলে।অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে,মোঃ শাহ আলম ইউনিয়নের বনপুর এলাকায় নিজের পৈত্রিক ভিটায় জায়গা জমি চাষাবাদ করে জীবিকা নির্বাহ করে।তার জমির পার্শ্ববর্তী জায়গার মালিক লামা উপজেলা শহরের বিশিষ্ট ঠিকাদার প্রভাবশালী জনৈক করিমুল মোস্তফা স্বপন।ঠিকাদার স্বপনের জায়গা জমি দেখাশুনা ও পাহারা দেয় মোঃ দিলদার ও তার ভাইয়েরা।দিলদার ও তার ভাইরা সবাই রোহিঙ্গা।অল্প বেতনে ও যে কোন কাজ করানো যায় বলে রোহিঙ্গা লোকজনকে কাজে রাখতে অনেকে আগ্রহ প্রকাশ করেন।দুই পক্ষের জমির মাঝখানে চলাচল রাস্তা বন্ধ করে দেয় করিমুল মোস্তফা স্বপন এর পাহাদার দিলদার। এই নিয়ে কয়েকদিন আগে উভয়ের মাঝে বাকবিতন্ডা হয়।সেই সূত্র ধরে লামা থানায় অভিযোগ করে প্রতিপক্ষ।পূর্বের জের ধরে গত শুক্রবার দুপুরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে পুলিশের উপস্থিতিতে দিলদার এর ভাই মোঃশফি (৪৫),মোস্তাক আহমদ (৪০),ছেলে মোঃ কামাল (১৯) ও ভাতিজা আব্দুল হামিদ (১৮) সকলে মিলে বেধড়ক মারধর করে শাহ আলমকে।মুমূর্ষ শাহ আলমকে চিকিৎসার জন্য পার্শ্ববর্তী চকরিয়া হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।শাহ আলমের ছোট ভাই মোঃ মানিক (ঈমাম) বলেন,আমার ভাই মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। বার্মাইয়া দিলদার ও তার বাহিনীর কারণে আমরা ভয়ে ভয়ে দিন কাটায়।এদিকে তার মালিক স্বপন কোটিপতি লোক হওয়ায় থানা পুলিশ তাদের পক্ষে কথা বলে।এবিষয়ে মোঃদিলদার এর সাথে কথা বলতে তার বাড়িতে গেলে তাকে না পাওয়ায় বক্তব্য নেয়া যায়নি।বনপুর এলাকার ইউপি মেম্বার আপ্রæচিং মার্মা বলেন,দিলদার তারা রোহিঙ্গা এবং ঝগড়াটে।তারা কারো কথা মানেনা। শাহ আলমের পরিবারকে আইনের আশ্রয় নিতে বলেছি।লামা থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক মাহাবুবুর রহমান বলেন,করিমুল মোস্তফা স্বপন বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ করলে ঘটনা তদন্তে যাই।শাহ আলম আমাকে সরে যায়। দিলদার ও সঙ্গীয়রা শাহ আলমকে মারধর করলে আমি তাকে দ্রæত চিকিৎসা করাতে বলি।

ট্যাগ :

আরো সংবাদ

ফেইসবুকে আমরা



আর্কাইভ
June 2023
M T W T F S S
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031  
আলোচিত খবর

error: কি ব্যাপার মামা !!