শিরোনাম: আলোচনায় কেএনএফ প্রধানের স্ত্রীঃ করা হলো স্ট্যান্ড রিলিজ সাঙ্গু নদীতে ফুল ভাসিয়ে শুরু হলো চাকমা-তঞ্চঙ্গ্যাদের বিঝু-বিষু উৎসব যথাযোগ্য মর্যাদা ও উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে পবিত্র ঈদুল ফিতরের ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত বান্দরবানে রুমা-থানচি ব্যাংক ডাকাতির ঘটনায় ৫২ জন কারাগারে স্মার্ট বান্দরবান-স্মার্ট ক্রীড়াঙ্গনঃ ঈদুল ফিতর ও মাহা সাংগ্রাই পোয়েঃ উপলক্ষে খেলোয়াড়রা পেলো শুভেচ্ছা উপহার বান্দরবানে জেলা প্রশাসনের কর্মচারীরা পেলো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঈদ উপহার থানচিতে ব্যাংক ডাকাতির ঘটনায় গ্রেফতার আরও ৪ রুমায় সোনালী ব্যাংকের সহকারী ক্যাশিয়ারসহ দুই কেএনএফ সন্ত্রাসী আটক

করোনাকে ইস্যু করতে চাইছে বিএনপি, অভিমত বিশ্লেষকদের


অনলাইন ডেস্ক প্রকাশের সময় :১৬ মার্চ, ২০২০ ৫:১৭ : অপরাহ্ণ 486 Views

কোভিড-১৯ যা করোনা ভাইরাস নামে পরিচিত – সাম্প্রতিক সময়ে গণমাধ্যমের শিরোনামে প্রাধান্য বিস্তার করেছে। এশিয়ার বিভিন্ন অংশ এবং এর বাইরেও দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে এই ভাইরাস। বিশ্বের প্রায় সবকটি দেশেই বিস্তার করেছে এ মহামারি। তবে তুলনামূলকভাবে বাংলাদেশে এর প্রভাব নেই বললেই চলে।
ইতিমধ্যে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে দেশে প্রবেশের সবকয়টি রুটসহ সারাদেশে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। রাজধানী ঢাকার সবকয়টি হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে করোনা প্রস্তুতি, প্রস্তুত রয়েছে আইসোলেশন। এছাড়া বিভাগীয় শহরগুলোতেও প্রস্তুতির ঘাটতি রাখেনি সরকার।
ঢাকা-চট্টগ্রামসহ দেশের বড়বড় শহরগুলো ছাড়াও সরকারী নির্দেশনায় দেশের প্রতিটি জেলা শহর ছাড়িয়ে প্রত্যেকটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেও প্রস্তুত আইসোলেশন। এছাড়া দেশের প্রতিটি গ্রামে গ্রামে করোনার সচেতনতা নিয়ে লিফলেট বিতরণ ও সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে কার্যক্রম শুরু করে স্বাস্থ্য বিভাগ।
প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে দেশব্যাপী প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে সরকার। করোনায় আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্য রাজধানীতে ৪০০ বেডের হাসপাতাল প্রস্তুত রাখা হয়েছে। প্রতিটি জেলায় প্রস্তুত রয়েছে ১০০ বেড। প্রত্যেক উপজেলা পর্যায়ের হাসপাতালে পৃথক কর্নার করা হয়েছে।
সূত্র মতে, এ পর্যন্ত ৫০ লাখ মানুষকে স্ক্যানিং করা হয়েছে। সম্প্রতি ছয়টি অত্যাধুনিক থার্মাল স্ক্যানার আনা হয়েছে। এছাড়া পর্যায়ক্রমে নৌ ও স্থলবন্দরগুলোতেও স্ক্যানার বসানো হচ্ছে। জনসচেতনতা বাড়াতে সারা দেশে পোস্টার-ব্যানার সাঁটানো হয়েছে। ডাক্তার ও নার্সদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। ডাক্তার-নার্সদের নিরাপত্তার বিষয়টি সর্বাধিক গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।
বাংলাদেশী জনসাধারণের কথা চিন্তা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতিমধ্যেই আগামী ১৭ মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকীর বিশাল অনুষ্ঠান বাতিল ঘোষনা করেছেন। ১৭ই মার্চ দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ সকল প্যারেড, কুচকাওয়াজ ও জনসমাগম নিষিদ্ধও করেছে সরকার। জনগণকে করোনার হাত থেকে রক্ষা করতে সরকার এরমধ্যেই সকল প্রস্তুতি হাতে নিয়েছে। বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।
জনগণের স্বাস্থ্যের কথা চিন্তা করে মুজিববর্ষের প্রোগ্রাম পুনর্বিন্যাস করা হয়েছে। বাজারে মাস্ক ও হ্যান্ড সেনিটাইজারেশনের সকল পণ্যের উপর নির্ধারিত মূল্য নির্ধারণ করে দিয়েছে সরকার। এছাড়া কোথাও যাতে অতিরিক্ত দামে মাস্ক বা করোনায় প্রয়োজনীয় সামগ্রী বিক্রি করা না হয় সেজন্য বেশকয়েকটি টাস্কফোর্সের মাধ্যমে সরকার দেশের বাজার মনিটরিং করছে প্রতিনিয়ত। এর মধ্যে সারাদেশে অভিযান পরিচালনা করে বেশ কিছু অসাধু ব্যবসায়ীকে জরিমানাও করা হয়েছে। দেশে হ্যান্ড স্যানিটাইজার উৎপাদনকারী সাত ওষুধ কোম্পানির উৎপাদিত হ্যান্ড স্যানিটাইজারের মূল্য নির্ধারণ করে দিয়েছে ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর।
এদিকে করোনা ভাইরাস নিয়ে সাবেক বিরোধী দল বিএনপি নেতারা মানবিক বিষয়টি না দেখে বরং এর মধ্যে ইস্যু খুঁজতে শুরু করেছে। এর মধ্যে রাজনীতির অনুপ্রবেশ ঘটাতে চাইছেন কেউ কেউ। তারা মানবিক বিষয় দেখছেন না, তারা করোনা ভাইরাসের মধ্যে ইস্যু খুঁজতে শুরু করেছেন বলে অভিমত ব্যক্ত বিশ্লেষকরা। কেউ কেউ মনে করছেন, রাজনীতিতে সোঁজা হয়ে দাঁড়াতে না পারা বিএনপি প্রতিনিয়ত সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে ত্রুটি খোঁজার কাজে ব্যস্ত। করোনা ভাইরাসের হাত থেকে দেশের জনগণকে রক্ষা করতে এবং জণসাধারণকে প্রাধান্য দিয়ে জাতির জনকের জন্ম শতবার্ষিকীর অনুষ্ঠান বাতিল করার বিষয়টিকে যথাযথ মূল্যায়ন না করে বিএনপি তাদের চিরাচরিত রুপ তথা ত্রুটি বের করার চেষ্টা করছেন। বিশ্লেষকরা বলছেন, যেখানে চীন, রাশিয়া, ভারতসহ বেশ কয়েকটি দেশ যখন করোনা প্রতিরোধে বাংলাদেশকে সহায়তার অঅশ্বাস দিচ্ছে তখন মাঠ পর্যায়ে জনসমর্থন আদায়ে ব্যর্থ বিএনপির উচিত ছিলো করোনা ভাইরাস মোকাবেলা ও প্রতিরোধে সরকারের পাশে থেকে সরকারের সহায়তা করা, কিন্তু সেটি না করে বিএনপি এখনো জাতির ক্রান্তিলগ্নে করোনাকে ইস্যু করতে চাইছে।
এছাড়া জনগণ মনে করছেন, বিএনপির মতো অজুহাত ভিত্তিক দল দেশের উন্নয়নে সামিল হোক আর না হোক জাতির জনক বঙ্গবন্দু শেষষখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কণ্যা প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাবে, প্রতিরোধ হবে সকল বাঁধা, মুছে যাবে গ্লানি আর প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নমূলক সকল কর্মকান্ডে তার পাশে থাকবে দেশের সাধারণ জনগণ।

ট্যাগ :

আরো সংবাদ

ফেইসবুকে আমরা



আর্কাইভ
April 2024
M T W T F S S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031  
আলোচিত খবর

error: কি ব্যাপার মামা !!