এই মাত্র পাওয়া :

শিরোনাম: আবাদ যোগ্য এক ইঞ্চি জমিও খালি না রাখতে আহবান জানালেন জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি নাইক্ষ্যংছড়িতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে পন্ড নাইক্ষ্যংছড়ি তে ইয়াবাসহ গ্রেফতার ১ ম্রো আবাসিক উচ্চবিদ্যালয় ৪২ তম বর্ষপূর্তিতে ১ম পুনর্মিলনী ও উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন অনুষ্ঠিত ব্লাইন্ড ক্রিকেট টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপে জাতীয় দলের হয়ে খেলবে বান্দরবানের সুকেল তঞ্চঙ্গ্যা মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন আনোয়ার ইব্রাহিম লামার ফাইতং এ ইউনিয়ন যুবলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত দেশের সর্বোচ্চ বিন্দু বা পর্বতশৃঙ্গ কোনটিঃ নির্ণয় করবে জরিপ অধিদপ্তর

লংগদুতে যৌথবাহিনীর অভিযান,বিপুল পরিমাণ গোলাবারুদ উদ্ধার


প্রকাশের সময় :২৯ জুন, ২০১৭ ৮:৩৭ : অপরাহ্ণ 510 Views

সিএইচটি টাইমস নিউজ ডেস্কঃ-রাঙ্গামাটির লংগদুতে যৌথবাহিনীর অভিযানে একে-৪৭ সহ চারটি অত্যাধুনিক অস্ত্র বিপুল গোলাবারুদ ও সামরিক সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে।এসময় গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে সন্ত্রাসীদের আস্তানা।গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার ভোরে লংগদু সদর ইউনিয়নের গোলাছড়ি নামক গহীণ পাহাড়ি এলাকায় এই অভিযান চালানো হয়।সেনাবাহিনীর লংগদু জোন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কর্নেল আব্দুল আলীম চৌধুরীর নেতৃত্বে অভিযানটি পরিচালিত হয়েছে বলে সেনাসূত্র নিশ্চিত করেছে।সূত্র মতে,উদ্ধার করা অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে-২টি একে-৪৭ রাইফেল,১টি যুগোস্লাভিয়া তৈরি রাইফেল ও ১টি চাইনিজ রাইফল। এছাড়া ১৫২ রাউন্ড তাজাগুলি,৪টি ম্যাগজিন,৫টি মোবাইল ফোন,৪ জোড়া সামরিক পোশাকসহ বিপুল সরঞ্জাম ও ইউপিডিএফের নথিপত্র।সূত্র আরও জানায়,ওই এলাকায় নাশকতার উদ্দেশ্যে আস্তানা গেড়ে একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী অবস্থান করছিল-এমন গোপন তথ্য নিশ্চিত হওয়ায় সেনাবাহিনী ও পুলিশ যৌথঅভিযানে নামে।অভিযান শুরু হয় বুধবার রাত থেকে।এ সময় এলাকাটি ঘিরে ফেলে পুলিশ ও সেনা সদস্যরা।কিন্তু তার আগে যৌথবাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে পানিতে ঝাঁপ দিয়ে পালিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা।পরে সন্ত্রাসীদের আস্তানায় তল্লাশি চালিয়ে ওইসব অস্ত্র,গোলাবারুদ ও সামরিক সরঞ্জাম উদ্ধার করে যৌথবাহিনী।সন্ত্রাসীরা ইউপিডিএফ সমর্থিত বলে জানায় পুলিশ।লংগদু থানার ওসি মোমিনুল ইসলাম জানান,লংগদু সদর ইউনিয়নের গোলাছড়িতে কয়েক দিন ধরে ১৫-১৬ জনের একটি সশস্ত্র সন্ত্রাসী দল অবস্থান করছিল।গোপন তথ্যে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর অভিযান পরিচালিত হয়েছে।কিন্তু যৌথবাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা মাইনি নদীতে ঝাঁপ দিয়ে পালিয়ে যায়।পরে ভোর ৪টার দিকে তাদের আস্তান থেকে ওইসব আগ্নেয়াস্ত্র,গোলাবারুদ ও সামরিক সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে।তাৎক্ষণিক পালিয়ে যাওয়ায় সন্ত্রাসী কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি বলে জানান ওসি।

ট্যাগ :

আরো সংবাদ

ফেইসবুকে আমরা



আর্কাইভ
November 2022
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031  
আলোচিত খবর

error: কি ব্যাপার মামা !!