শিরোনাম: থানচিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারের ঘর পেলো ১০৫ পরিবার বান্দরবানে সামাজিক ও সেবামূলক সংগঠন হিসেবে যাত্রা শুরু করলো স্বপ্নবিলাস গোপালগঞ্জের সাভানা ইকো রিসোর্ট অ্যান্ড ন্যাচারাল পার্কে রিসিভার নিয়োগ করলো জেলা প্রশাসন বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশুদের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরন অনুষ্ঠিত ভূমিসেবা সপ্তাহ উদযাপন উপলক্ষ্যে জেলা প্রশাসনের প্রেস কনফারেন্স অনুষ্ঠিত যথাযোগ্য মর্যাদায় বান্দরবানে পালিত হলো বিশ্ব পরিবেশ দিবস সাতাঁর প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরন অনুষ্ঠিত বিএনপি পার্বত্য অঞ্চলকে অন্ধকারে নিমজ্জ্বিত একটি জনপদে পরিনত করেছিলোঃ বীর বাহাদুর

৩০০ নং বান্দরবান আসনে কেন সাচিং প্রু জেরী?


প্রকাশের সময় :১৮ নভেম্বর, ২০১৮ ৭:৪২ : অপরাহ্ণ 808 Views

আশরাফুর রহমান, (মুক্তমত):-একাদশ সংসদ নির্বাচন ৩০ ডিসেম্বর।আজ থেকে শুরু হয়েছে বিএনপি’র মনোনয়ন প্রার্থীদের সাক্ষাতকার পর্ব।জাতীয়বাদী দল’র সকল নেতা-কর্মীদের ভাবনা কারা হচ্ছেন ৩০০ আসনের ধানের শীষের কান্ডারী।বান্দরবানের তৃনমুল ভাবনাও এর ব্যাতিক্রম নয়।

বান্দরবান বিএনপির মনোনয়নের জন্য ফরম সংগ্রহ করেছেন ১৩ জন।তবে তৃণমুলের ভাবনায় সবচেয়ে এগিয়ে সাচিং প্রু জেরী।কিন্তু কেন তিনি এগিয়ে? তাই খুঁজার চেষ্টা করেছি।

১, ১/১১ পরবর্তী দল’র সবচেয়ে দু:সময়ে যখন নেতৃত্ব দেওয়ার কেউ ছিলনা তখন তিনি’ই দলের হাল ধরেন এবং সে ধারাবাহীকতা আজো চলমান।

২,স্থানীয় সরকার নির্বাচন গুলোতে তাঁর চৌকস নেতৃত্ব সর্বোচ্ছ সংখ্যক প্রার্থী বিজয়ে গুরুত্তপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।

৩,দল’র দূর্দিনেও মামলা হামলার শিকার নেতা-কর্মীদের পাশে দাড়িয়েছেন,তাঁদের সাহস জুগিয়েছেন।সেই নেতা-কর্মীরাই আজ দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে যাচ্ছেন।

৪,নির্বাচনে জয়ী হতে হলে দলীয় কর্মী,সমর্থকদের পাশাপাশি সাধারণ জনতার ভোট ও সমর্থন অন্যতম গুরুত্তপূর্ণ।সেই ক্ষেত্রে তিনি এবং তাঁর পরিবার শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান’র আমল থেকেই আমজনতার জন্য কাজ করার কারণে অন্যদের চেয়ে তিনি অনেকটা এগিয়ে।

৫,শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান’র আমলে সাচিং প্রু জেরীর বাবা ছিলেন খাদ্যমন্ত্রী।সেই ধারাবাহীকতায় তিনিও প্রথমে উপজেলা পরে নির্বাচিত জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ছিলেন।তাই দল এবং দল’র বাহিরে আলাদা ইমেজ তৈরী হয়েছে।

৬,দল থেকে নির্বাচিত ৪ উপজেলা চেয়ারম্যান, প্রায় সকল ভাইস চেয়ারম্যান, ইউপি চেয়ারম্যান বৃন্দ,জেলা কমিটির ৯০ ভাগ নেতৃবৃন্দ এবং উপজেলা,পৌরসভা ও সকল সাংগঠনিক ইউনিট’র নেতৃবৃন্দ রয়েছেন সাচিং প্রু জেরীর নেতৃত্বে।তাছাড়া সাবেক বোমাং রাজার সন্তান হওয়ায় বান্দরবানে বিএনপি জয়ী হওয়ার পথে গুরুত্তপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

৭,সরকারের সকল চাপের মাঝেও দলীয় প্রোগ্রাম পালনে কখনো পিছুপা হননি।জনমানব শুন্য এলাকায় ফটো সেশন করে নিজের প্রচারনা চালানোর জন্য দলকে সাধারণ মানুষের কাছে ছোট করেননি,হাস্যকর ইস্যু করেননি বরং রাজপথে সবসময় সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন।

৮, এমন অসংখ্য কারণ আছে যা স্বল্প পরিসরে লিখে শেষ করা যাবেনা।আশা করি দল’র হাইকমান্ড, তৃণমুল’র মনের কথা বুঝবেন।ত্যাগী,নিরহংকার, নির্লোভী,কর্মী বান্ধব, পার্বত্য জেলা বান্দরবান বিএনপির অতন্দ্র প্রহরী জননেতা সাচিং প্রু জেরী মনোনয়ন দিবেন এবং আমরা তৃণমুল তাঁর যোগ্য নেতৃত্বে ৩০০ নং আসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে উপহার দিতে পারব ইনশাআল্লাহ।

ট্যাগ :

আরো সংবাদ

ফেইসবুকে আমরা



আর্কাইভ
June 2024
M T W T F S S
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031
আলোচিত খবর

error: কি ব্যাপার মামা !!