স্বাধীনতা দিবসে বান্দরবানে সহস্রাধিক নেতাকর্মী নিয়ে জেরীর ব্যাপক শোডাউন


প্রকাশের সময় :২৬ মার্চ, ২০১৮ ৫:৩৫ : অপরাহ্ণ 680 Views

বান্দরবান অফিসঃ-মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসে পুষ্পস্তবক অর্পনের র‌্যালীর মাধ্যমে ব্যাপক শোডাউন করেছে বান্দরবান জেলা বিএনপি। মঙ্গলবার সকালে পুরাতন রাজবাড়ী থেকে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী নিয়ে শহীদ মিনারে যাওয়ার পথে এ শোডাউনে নেতৃত্ব দেন কেন্দ্রীয় বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য ও জেলা বিএনপি সভাপতি রাজপুত্র সাচিং প্রু জেরী।এসময় র‌্যালীতে অংশ নেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আজিজুর রহমান,জেলা বিএনপির প্রভাবশালী সহসভাপতি আব্দুল কুদ্দুছ চেয়ারম্যান,সাবেক জেলা পরিষদ সদস্য লুসাই মং,সহ সভাপতি আব্দুস শুক্কুর,যুগ্ম সম্পাদক মুজিবুর রশিদ,মহিলা দল সভাপতি নিলুতাজ বেগম,সেচ্ছাসেবক দল আহবায়ক জাহাঙ্গীর আলম,সাধারন সম্পাদক উম্মে কুলসুম রিনা,পৌর সভাপতি নাছির উদ্দিন চৌধুরী।এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন সাধারন সম্পাদক নজরুল ইসলাম,সিনিয়র সহ সভাপতি ফেরদৌস হায়দার রুশো, যুগ্ম সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন মাষ্টার,শ্রমিক দল সাংগঠনিক সম্পাদক আবু তাহের,ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হাবিবুর রহমান,সাধারন সম্পাদক দৌলতুল কবির খান,ছাত্রদল পৌর সভাপতি আলাউদ্দিন আলো,মৎস্যজিবি দল সভাপতি আবুল হাসেম প্রমুখ।পরে বিশাল বহর নিয়ে শহীদ মিনারে বীর শহীদদের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান সাচিং প্রু জেরী।এসময় বোমাং রাজপুত্র সাচিং প্রু জেরী সিএইচটি টাইমস ডটকম কে বলেন,আজ ঐতিহাসিক ২৬ শে মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস ও জাতীয় দিবস।১৯৭১ সালের ২৫ শে মার্চ রাতে পাক হানাদার বাহিনী অতর্কিত বাংলাদেশের মু্ক্তিকামী জনগণের উপর হায়েনার ন্যায় ঝাপিয়ে পরেছিলো।দেশ ও জাতী যখন দিশেহারা হারা দিকনির্দেশনার অভাবে ঠিক তখনই চট্রগ্রাম বেতার কেন্দ্র থেকে ভেসে এসছিলো স্বাধীনতা ঘোষণার এক লৌহমানবের কন্ঠ।তিনি আর কেউ নয় জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান,বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ কৃতি সেনা কর্মকর্তা,তৎকালীন সেনাবাহিনীর মেজর জিয়াউর রহমান।যুদ্ধ পরবর্তী সময়ে যিনি অসীম সাহসিকতার স্বীকৃতি স্বরুপ ভূষিত হয়েছিলেন বীর উত্তম উপাধিতে।স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান সেনাবাহিনী তে ফিরে আসেন এবং ক্রমান্বয়ে ধাপে ধাপে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সেনা প্রধান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন।দেশ ও জাতির আরেকটি ক্রান্তিকালে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান এদেশের জনগণের সত্যিকারের গনতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে গঠন করেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)।এই বিএনপি’র নেতৃত্বে বাংলাদেশে গনতন্ত্র মুক্তি পায় এবং শহীদ জিয়াউর রহমান বহুদলীয় গনতন্ত্রের প্রবক্তা হিসেবে বাংলাদেশ যতদিন পৃথিবীর মানচিত্রে অবস্থান করবে ততদিন তিনি দেশের শ্রেষ্ঠ সন্তান হিসেবে প্রতিষ্ঠিত থাকবে।বিএনপি বর্তমানে একটি দুঃসময় পার করছে।বিএনপি চেয়ারপারসন দেশনেত্রী দেশমাতা বেগম খালেদা জিয়া কে অন্যায়ভাবে কারাগারে কারান্তরীন করা হয়েছে।আজকের এই মহান স্বাধীনতা দিবসে বিএনপির প্রতিটি নেতাকর্মীর একটাই দাবী আমাদের মা জননী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে হবে।বিএনপির প্রতিটি নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধভাবে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তিতে রাজপথে নেমে আসবে,এটাই আমাদের আজকের এই দিনের শপথ।

 

ট্যাগ :

আরো সংবাদ

ফেইসবুকে আমরা



আর্কাইভ
May 2024
M T W T F S S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
282930  
আলোচিত খবর

error: কি ব্যাপার মামা !!