শিরোনাম: আলোচনায় কেএনএফ প্রধানের স্ত্রীঃ করা হলো স্ট্যান্ড রিলিজ সাঙ্গু নদীতে ফুল ভাসিয়ে শুরু হলো চাকমা-তঞ্চঙ্গ্যাদের বিঝু-বিষু উৎসব যথাযোগ্য মর্যাদা ও উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে পবিত্র ঈদুল ফিতরের ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত বান্দরবানে রুমা-থানচি ব্যাংক ডাকাতির ঘটনায় ৫২ জন কারাগারে স্মার্ট বান্দরবান-স্মার্ট ক্রীড়াঙ্গনঃ ঈদুল ফিতর ও মাহা সাংগ্রাই পোয়েঃ উপলক্ষে খেলোয়াড়রা পেলো শুভেচ্ছা উপহার বান্দরবানে জেলা প্রশাসনের কর্মচারীরা পেলো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঈদ উপহার থানচিতে ব্যাংক ডাকাতির ঘটনায় গ্রেফতার আরও ৪ রুমায় সোনালী ব্যাংকের সহকারী ক্যাশিয়ারসহ দুই কেএনএফ সন্ত্রাসী আটক

চট্টগ্রামে নির্মিত হবে সবচেয়ে কম খরচের সৌরবিদ্যুৎ


সিএইচটি টাইমস অনলাইন ডেস্ক প্রকাশের সময় :৩০ জানুয়ারি, ২০২০ ১:০৯ : অপরাহ্ণ 441 Views

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়াতে ৫৫ মেগাওয়াট ক্ষমতার সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ করতে যাচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাতভিত্তিক বহুজাতিক কোম্পানি মেটিটো। সর্বনিম্ন দরদাতা এবং কারিগরি বিবেচনায় এ প্রকল্প বাস্তবায়নে মেটিটো, আল জোমাইহ এবং জিনকো পাওয়ারের সমন্বয়ে গঠিত কনসোর্টিয়ামকে নির্বাচন করেছে সরকার। ২০ বছর মেয়াদে কেন্দ্রটি নির্মাণ, মালিকানা ও পরিচালনা করবে এ কনসোর্টিয়াম। এতে দেশের সবচেয়ে কম খরচের সৌরবিদ্যুৎ উত্পাদিত হবে বলে জানিয়েছে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি)।

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের বিদ্যুৎ বিভাগের অনুমোদনের পর বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি) গত সপ্তাহে মেটিটোর অনুকূলে প্রকল্পটির অনুমোদন দিয়েছে। পিডিবি সূত্র জানায়, প্রকল্পটির আওতায় উত্পাদিত প্রতি ইউনিট (কিলোওয়াট) বিদ্যুতের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ০.০৭৪৮ মার্কিন ডলার। এটি এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে নির্মিত ও নির্মাণাধীন সৌর প্রকল্পগুলোর মধ্যে সর্বনিম্ন দর। সুষম জ্বালানি মিশ্রণ নিশ্চিত এবং পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণে পরিচ্ছন্ন জ্বালানির এ কেন্দ্র গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

শর্ত অনুযায়ী, চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার চন্দ্রঘোনায় বিশ্বমানের প্রযুক্তি ব্যবহার করে বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি নির্মাণ করবে মেটিটো। জমি প্রদান করবে পিডিবি। আগামী বছরের দ্বিতীয়ার্ধে কেন্দ্রটি উত্পাদন শুরু করতে পারবে। চন্দ্রঘোনা ১৩২/৩৩ কেভি গ্রিড সাবস্টেশনের মাধ্যমে কেন্দ্রটির বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হবে। মেটিটোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক র্যামি গ্যানডো বলেন, বাংলাদেশে প্রগতিশীল নেতৃত্ব এগিয়ে যাচ্ছে। বিকল্প বা নবায়নযোগ্য জ্বালানির এ ধরনের প্রকল্প টেকসই সমাধান এনে দেয়। এ প্রকল্প এগিয়ে নেওয়ার পদক্ষেপ সেই দূরদর্শী নেতৃত্বের পরিচায়ক। প্রকল্পটি বাস্তবায়নের অংশীদার হতে পেরে আমরা আনন্দিত। অদম্য এ কনসোর্টিয়ামের সবগুলো প্রতিষ্ঠানের রয়েছে অপূর্ব দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা যার মাধ্যমে প্রকল্পটি সর্বোচ্চ মান নিশ্চিত করে বাস্তবায়িত হবে।

আরও পড়ুন: আমাদের রাজনীতি উন্নয়ন ও কাজের রাজনীতি: আনোয়ার হোসেন মঞ্জু

জানা যায়, পানি ব্যবস্থাপনা সল্যুশন খাতে ৬০ বছরের বেশি সময় ধরে বিভিন্ন দেশে কাজ করছে মেটিটো। ডিজাইন ও বিল্ডিং, রাসায়নিক এবং ইউটিলিটিজ—এ তিনটি খাতে দীর্ঘ অভিজ্ঞতা রয়েছে কোম্পানিটির। পানি ব্যবস্থাপনা ও জলবিদ্যুতের পাশাপাশি মেটিটো সম্প্রতি পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপের ভিত্তিতে বিকল্প জ্বালানি শক্তি, সৌরবিদ্যুৎ, বায়ুবিদ্যুৎ এবং বর্জ্য থেকে জ্বালানি উত্পাদনে বিশেষ নজর দিয়েছে। রাঙ্গুনিয়া বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি বাংলাদেশে কোম্পানিটির জন্য প্রথম প্রকল্প।

সৌর শক্তিকে টেকসই এবং সাশ্রয়ী মূল্যের উত্স হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে সৌরবিদ্যুত্ কেন্দ্রের বিকাশ, গঠন, অর্থায়ন, মালিকানা এবং পরিচালনা করে আসছে জিনকো পাওয়ার। বিভিন্ন দেশে প্রায় ৩৫০টি সৌর পিভি প্রকল্পের মালিকানায় ও পরিচালনায় রয়েছে এটি। এর মধ্যে শুধু চীনেই রয়েছে ৩ দশমিক ১ গিগাওয়াট সৌর পিভি প্রকল্প। জিনকো বিশ্বের বৃহত্তম সৌর পিভি ১.৭৭ গিগাওয়াট ক্ষমতার সুইহান কেন্দ্রের মালিক এবং অপারেটর। রাঙ্গুনিয়া কেন্দ্রটি দক্ষতার সঙ্গে পরিচালনার জন্য কারিগরি ও অপারেশনাল সহায়তা দেবে কোম্পানিটি।

ট্যাগ :

আরো সংবাদ

ফেইসবুকে আমরা



আর্কাইভ
April 2024
M T W T F S S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031  
আলোচিত খবর

error: কি ব্যাপার মামা !!