এই মাত্র পাওয়া :

শিরোনাম: ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত দুই উপজেলায় বাড়লো ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা বান্দরবানে সাড়ে ৪ কোটি টাকার জব্দকৃত মাদকদ্রব্য ধ্বংস করলো আদালত আবাদ যোগ্য এক ইঞ্চি জমিও খালি না রাখতে আহবান জানালেন জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি নাইক্ষ্যংছড়িতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে পন্ড নাইক্ষ্যংছড়ি তে ইয়াবাসহ গ্রেফতার ১ ম্রো আবাসিক উচ্চবিদ্যালয় ৪২ তম বর্ষপূর্তিতে ১ম পুনর্মিলনী ও উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন অনুষ্ঠিত ব্লাইন্ড ক্রিকেট টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপে জাতীয় দলের হয়ে খেলবে বান্দরবানের সুকেল তঞ্চঙ্গ্যা মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন আনোয়ার ইব্রাহিম

আলিকদম উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম কে নিয়ে নতুন ষড়যন্ত্র


প্রকাশের সময় :১২ মার্চ, ২০১৭ ৫:৩১ : পূর্বাহ্ণ 1497 Views

সিএইচটি টাইমস নিউজ ডেস্কঃ-বান্দরবানের আলিকদম উপজেলার দুইবারের নির্বাচিত উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম কে নিয়ে নতুন করে ষড়যন্ত্র শুরু করার অভিযোগ উঠেছে আলিকদমের স্থানীয় কতিপয় স্বার্থান্বেষী একটি মহলের বিরুদ্ধে।এরই অংশ হিসেবে মাননীয় সুপ্রিমকোর্ট এর আপিল বিভাগ কতৃক স্থগিতাদেশ থাকা একটি মামলা নিয়ে আলিকদমের কতিপয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে লিখিত অভিযোগ পত্র দাখিল করে চেয়ারম্যানকে দায়িত্ব থেকে অপসারণের চেষ্টা করছে বলে জানা যায়।অনুসন্ধানে জানা যায়,স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে লিখিত অভিযোগটিতে যারা সাক্ষর করেছেন তারা প্রত্যেকেই স্থানীয় রাজনীতিতে হয় বিএনপি নাহয় আওয়ামীলীগ এর সাথে জড়িত।উপজেলা পরিষদের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের গতিশীলতা রক্ষায় তারা যদি আন্তরিক হতেন তবে তারা উপজেলার উন্নয়নে চেয়ারম্যান কে সহযোগিতা করতেন এবং উপজেলা পরিষদ কতৃক গৃহীত বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত হতেন।কিন্তু তারা সে পথে না হেটে শুধুমাত্র জনগণের ভালোবাসায় সিক্ত এবং বারবার জনগণের ভোটে নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম এর ক্যারিশম্যাটিক নেতৃত্ব মন থেকে মেনে নিতে না পেরে প্রতিহিংসার বহিঃপ্রকাশ ঘটাচ্ছেন।তারা যদি এলাকার উন্নয়নে সত্যিকারেই আন্তরিক হতেন তবে তাহলে চেয়ারম্যান কে সহযোগিতা করে এলাকার উন্নয়ন তরান্বিত করতেন।তা না করে দীর্ঘদিনের পুরনো একটি বিষয়কে ইস্যু করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ে লিখিত অভিযোগ করতেন না।অনুসন্ধানে আরও জানা যায়,শুধুমাত্র ভোটের রাজনীতিতে আবুল কালাম এর দৃঢ় সাংগঠনিক অবস্থান এর সামনে টিকতে না পেরে আলিকদমের আওয়ামীলীগ ও বিএনপির মুষ্টিমেয় একটি চক্র এই কাজগুলো করছে।যাদের জনসম্পৃক্ততা সম্পর্কে বরাবরই প্রশ্ন দেখা দেয়।এবিষয়ে জানতে চাইলে সিএইচটি টাইমস ডটকমকে আলিকদম উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম বলেন,আমার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ এর ১০ ও ৩০ ধারায় পিটিশন ১০/১০ এর বিচার বিভাগীয় তদন্তে সুস্পষ্টভাবে বলা হয়েছে, “এমতাবস্থায় সমস্ত স্বাক্ষ্য পর্যালোচনা ও পারিপার্শ্বিক বিবেচনায় নিয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১০ ধারার অন্যতম উপাদান তথা ‘অভিযুক্তের যৌন কামনা চরিতার্থ করার উদ্দেশ্য’ প্রাথমিক ভাবে সু-স্পষ্ট না হওয়ায় ফরিয়াদি কতৃক উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম ও জুলফিকার আলীর বিরুদ্ধে আনিত উপরোল্লেখিত আইনের ১০ ও ৩০ ধারার অপরাধ প্রাথমিক ভাবে প্রতীয়মান হয় নাই এবং বর্নিত মামলা প্রাথমিক তদন্তে মিথ্যা প্রমানিত হয়েছে”।বর্নিত মামলাটি মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে চলমান রীট পিটিশন মামলা নং ১০৫৬৭/২০১৫ মুলে বিচার কার্যক্রম স্থগিত রেখেছে।এসময় আবুল কালাম অভিযোগ করে আরও বলেন,মূলত আমার কাছ থেকে অনৈতিক সুবিধা না পেয়ে আলিকদমের স্থানীয় প্রভাবশালী সরকার সমর্থিত একটি মহলের ছত্রছায়া এবং অর্থায়নে পথের কাটা পরিষ্কার করতে তারা এই কাজগুলো করছে।এমন একটি মামলার বিষয় নিয়ে আমাকে দায়িত্ব থেকে বরখাস্তের যে পায়তারা শুরু হয়েছে আমি তা আইনিভাবে মোকাবেলা করবো।এসময় তিনি আরও বলেন আমার নিজ দলের যারা এসব কর্মকান্ড কে সহায়তা করছে তাদের রাজনৈতিক ভিত্তি কতটুকু তা নিয়ে আমি অবগত এবং তাদেরকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করা হবে।

ট্যাগ :

আরো সংবাদ

ফেইসবুকে আমরা



আর্কাইভ
November 2022
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031  
আলোচিত খবর

error: কি ব্যাপার মামা !!