এই মাত্র পাওয়া :

শিরোনাম: জেন্ডার ভিত্তিক সহিংসতার বিরুদ্ধে ১৬ দিনের প্রচারাভিযান উপলক্ষে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান বাংলাদেশের সংবিধান ‘সকল নাগরিকের সুযোগের সমতা’ নিশ্চিত করেঃ-(প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) বাংলাদেশের অগ্রগতির ভিত্তি রচনা করেছিলেন বঙ্গবন্ধু- এগিয়ে নিচ্ছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা বান্দরবানে এন.আর.বিসি কমার্শিয়াল ব্যাংকের শাখা উদ্বোধন এমডিএস হাসপাতালের নতুন ভবন উদ্বোধন বান্দরবানে সোমবার থেকে চালু হচ্ছে বিলাস বহুল লাক্সানা লাক্সারি পূরবী এসি,ননএসি বাস সার্ভিস ! বান্দরবানে সৌরশক্তি চালিত হিমাগারের উদ্বোধন জমি দখলের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

জিডিপি বেড়ে ৪১১০০ কোটি ডলার


অনলাইন ডেস্ক প্রকাশের সময় :২৪ নভেম্বর, ২০২১ ৫:৫৮ : অপরাহ্ণ

অর্থনীতির ভিত্তি বছর পরিবর্তন করায় আবার বাড়ল মাথাপিছু আয় ও মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধির আকার। জিডিপি আকার ৪১ হাজার ১শ কোটি মার্কিন ডলার হয়েছে। বাংলাদেশি মুদ্রায় ৩৪ হাজার ৮৪০ কোটি টাকা। একই সঙ্গে মাথাপিছু আয় বেড়ে ২ হাজার ৫৫৪ মার্কিন ডলার হয়েছে।

শেরেবাংলা নগরে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (এনইসি) সম্মেলন কক্ষে মঙ্গলবার একনেক সভা শেষে এ তথ্য জানান পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান। সভায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা। পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, একনেক সভায় ১০টি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়। এছাড়া মাথাপিছু আয় ও মোট জিডিপিসহ সব তথ্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে উপস্থাপন করা হয়। এমএ মান্নান বলেন, অর্থনীতির ভিত্তি বছর সংশোধন করেছি। আমরা ছিলাম ২০০৫-০৬ সালে। এখন ভিত্তি বছর ২০১৫-১৬ বছরে নিয়ে এসেছি। এতে অভ্যন্তরীণ উৎপাদন অনেক বেড়েছে। মোট জিডিপির আকার ৪১১ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে। বেড়েছে মাথাপিছু আয়ও। মাথাপিছু আয় বেড়ে ২ হাজার ৫৫৪ মার্কিন ডলার হয়েছে। যা টাকার অঙ্কে ২ লাখ ১৬ হাজার ৫৮০ টাকা। তিনি আরও বলেন, রিজার্ভ ৫০ বিলিয়ন, সাক্ষরতার হার ৭৫ দশমিক ২ শতাংশ হয়েছে। এছাড়া গড় আয়ু বেড়ে ৭২ দশমিক ৮ বছর হয়েছে। অন্যদিকে, দেশে দারিদ্র্যের হার কমে ২০ দশমিক ৫ শতাংশে নেমে এসেছে।’ পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, গত অর্থবছরে (২০২০-২১) জিডিপি প্রবৃদ্ধি দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ৪৩ শতাংশে। টাকার অঙ্কে ২৭ হাজার ৯৩৯ বিলিয়ন টাকা। যা ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ৭ দশমিক ৮৮ শতাংশ। ওই সময় টাকার অঙ্কে ছিল ২৬ হাজার ৫০১ বিলিয়ন টাকা। ব্রিফিয়ে ২০১৫-১৬ ভিত্তিবছর ধরায় তিন খাতের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে তুলে ধরা হয়।

কৃষিখাত : জিডিপি নিরুপণের জন্য এর আগে এ খাতের অন্তর্ভুক্ত সব তথ্যের সঙ্গে শস্য উপখাতে প্রায় ২০টি নতুন ফসল যোগ হয়েছে। সার্বিকভাবে চলতি মূল্যে ২০১৫-১৬ অর্থবছরে কৃষিখাতে মূল্য সংযোজনের আকার ১৪ দশমিক ৮ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

শিল্পখাত : সার্বিকভাবে চলতি মূল্যে ২০১৫-১৬ অর্থবছরে শিল্পখাতে মূল্য সংযোজনের আকার ৩৬ দশমিক এক শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

সেবাখাত : জিডিপি নিরূপণের জন্য এর আগে এ খাতের অন্তর্ভুক্ত সব তথ্যের সঙ্গে পরিবহণ খাতের নতুন জরিপ, উবার, পাঠাও, নতুন বেসরকারি হেলিকপ্টার সংস্থার তথ্য, রিয়েল এস্টেট খাতের নতুন জরিপ, মোবাইল ব্যাংক, এজেন্ট ব্যাংক, সরকারের অলাভজনক প্রতিষ্ঠানগুলোর তথ্য এবং শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতের হালনাগাদ তথ্য নতুনভাবে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। সার্বিকভাবে চলতি মূল্যে ২০১৫-১৬ অর্থবছরে সেবাখাতে মূল্য সংযোজনের আকার ১৪ দশমিক ৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

ট্যাগ :

আরো সংবাদ



আর্কাইভ
December 2021
M T W T F S S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
282930  
আলোচিত খবর

error: কি ব্যাপার মামা !!