শিরোনাম: রিজিয়ন প্রীতি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট-২৪ এর ফাইনাল খেলা ও পুরষ্কার বিতরন অনুষ্ঠিত বীর বাহাদুর স্কুল এন্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরন অনুষ্ঠিত পাহাড়ের বৈচিত্র্য ও সৌন্দর্য্য বিশ্ব দরবারে তুলে ধরতে বান্দরবানে হয়ে গেলো ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগিতা যথাযথ ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে বান্দরবানে পালিত হলো অমর একুশে বান্দরবানে জেলা প্রশাসকের বিশেষ বিবেচনায় দ্রুত সময়ে স্থায়ী বাসিন্দা সনদ পেলেন মেধাবী শিক্ষার্থী ক্য ক্য উঁয়া মার্মা লাইব্রেরী মানুষের বাহ্যিক জ্ঞানকে আরো বেশি প্রসারিত করেঃ লেঃ কর্নেল মাহমুদুল হাসান ৩ অবৈধ ইটভাটা সম্পুর্নরুপে গুঁড়িয়ে দিলো প্রশাসন জমকালো আয়োজনে পার্বত্য প্রমীলা ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন

বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয় ভিসি ড.এ এফ ইমাম আলি পেলেন মহাত্মা গান্ধী পিস অ্যাওয়ার্ড


অনলাইন ডেস্ক প্রকাশের সময় :২ এপ্রিল, ২০২৩ ১:৪৩ : অপরাহ্ণ 531 Views

ইন্ডিয়া বাংলাদেশ কালচারাল কাউন্সিল আয়োজিত মহাত্মা গান্ধী ইন্টারন্যাশনাল পিস অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত হয়েছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা,প্রফেসর ড.এ এফ ইমাম আলী।তিনি বর্তমানে বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।উচ্চ শিক্ষায় বিশেষ অবদানের জন্য তাকে এ পুরস্কার দেওয়া হয়।উল্লেখ্য,প্রফেসর ড.এ এফ ইমাম আলি আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন সমাজবিজ্ঞানী,শ্রেণি,বর্ণ,ধর্ম, সামাজিক ও জাতীয় সংহতির সমস্যা নিয়ে গবেষণা করে সমাজবিজ্ঞানকে যিনি সমৃদ্ধ করেছেন,৬২টির বেশি আন্তর্জাতিক গবেষণা ও অনেক মূল্যবান গ্রন্থের রচয়িতা, আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সমাজবিজ্ঞানের পথিকৃৎ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের বায়োগ্রাফিক্যাল ইনস্টিটিউট কর্তৃক দুইবার গোল্ডেন রেকর্ড অ্যাসিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড পান তিনি।

মিডিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ড. এ এফ ইমাম আলি বলেন,আমি মনে করি এই পুরস্কার সমগ্র বাঙালি জাতির।দূরদর্শিতার সঙ্গে সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য নিয়ে কাজ না করলে কখনোই সফলতা আসে না।শিক্ষা ছাড়া যেমন কোনো জাতিই মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারে না,তেমনি উচ্চ শিক্ষা ও গবেষণা পুরো জাতিকেই সফলতার দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে দেয়।

তিনি বলেন, দেশ বিভাজনের অব্যবহিত পরেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অনুধাবন করেছিলেন, একটি স্বাধীন ভূখণ্ড ছাড়া বাঙালির সার্বিক অর্থনৈতিক ও সামাজিক মুক্তি সম্ভব নয়। তাই বঙ্গবন্ধু একটি স্বাধীন ভূখণ্ডের লক্ষ্যে ধাপে ধাপে সব গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে অনুসরণ করেই বাঙালি জাতিকে প্রস্তুত করেন।যার চূড়ান্ত পরিণতি ১৯৭১ এর স্বাধীনতা যুদ্ধ ও আজকের স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধুর সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য ছিল সমৃদ্ধ অর্থনীতির একটি সাম্য ভিত্তিক সমাজ ব্যবস্থার সুখী, সুন্দর সোনার বাংলাদেশ।

তিনি আরো বলেন,শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর মতোই সুদৃঢ় লক্ষ্য নিয়েই সুখী,সমৃদ্ধ অর্থনীতির অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণের পথে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন এবং শিক্ষাব্যবস্থাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছেন।যার ফলে আজকের এই বাংলাদেশ।

ট্যাগ :

আরো সংবাদ

ফেইসবুকে আমরা



আর্কাইভ
February 2024
M T W T F S S
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031  
আলোচিত খবর

error: কি ব্যাপার মামা !!