এই মাত্র পাওয়া :

বান্দরবানে উপজেলা পর্যায়ে হতদরিদ্র কৃষকদের মাঝে গ্রীষ্মকালীন সবজি বীজ বিতরণ


প্রকাশের সময় :৬ মে, ২০১৭ ১০:০৩ : অপরাহ্ণ 1245 Views

মোহাম্মদ আলী বান্দরবান জেলা প্রতিনিধি:-ইউএসআইডির আর্থিক সহায়তায় পার্বত্য অঞ্চলের দুর্গম এলাকার গরীব অসহায় লোকজনদের জন্য খাদ্য নিরাপত্তা কর্মসূচির কাজ শুরু করেছে হেলেন কেলার ইন্টারন্যাশানাল।এই কর্মসূচির আওতায় বান্দরবানের লামা,রুমা ও সদর উপজেলার প্রায় ৩০ হাজার কৃষকদের মাঝে গ্রীষ্মকালীন সবজি বিতরণ করা হচ্ছে।তারই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় সদর উপজেলার সুয়ালক ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড কাইচতলী তুলাতলী এলাকায় স্যাপলিং কর্মসূচির অংশ গ্রহণকারী হতদরিদ্র কৃষকদের মাঝে গ্রীষ্মকালীন সবজি বীজ বিতরণ করা হয়।বীজ বিতরণ অনুষ্ঠানে হেলেন কেলার ইন্টারন্যাশনাল এর বান্দরবানের টিম লিডার ও আঞ্চলিক সমন্বয়কারী ডা:অংসাজাই মারমা এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ক্যাসা প্রæ মারমা।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ আলতাফ হোসেন,৪নং সুয়ালক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান উক্যানু মারমা,স্যাপলিং প্রকল্প সমন্বয়কারী ও টিম লিডার দীপংকর তালুদার চাকমা,খাদ্য নিরাপত্তা প্রকল্পের মোঃরেজাউল করিম, স্যাপলিং প্রকল্পের সিনিয়র অফিসার অংক্যছেন মারমা,বান্দরবান সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ইয়াকুব চৌধুরী,২নং কাইচতলী ওয়ার্ড মেম্বার ও ১নং প্যানেল চেয়ারম্যান মোঃজসিম উদ্দিন,তুলাতলী বাজার কমিটি ও তুলাতলী মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোঃ আমিনুল হক,স্যাপলিং প্রকল্পের অফিসার জয়নাল আবেদীন,স্যাপলিং প্রকল্পের মাঠ কর্মী থুই অং প্রæ মারমা,স্যাপলিং প্রকল্পের নারী প্রতিনিধি সুরমা বড়–য়াসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।আঞ্চলিক সমন্বয়কারী ডা:অংসাজাই জানান,স্যাপলিং কর্মসূচির অংশ গ্রহণকারী কৃষি কাজে সম্পৃক্ত নারীদের ১৭টি গ্রæপ করে মোট ৩৩৪জন দরিদ্র কৃষকদের মাঝে এই গ্রীষ্মকালীন সবজির বিতরণ করা হচ্ছে,আগামী শীত মৌসুমেও বান্দরবানের ৫টি উপজেলার কৃষক ও জুম চাষীদের মাঝে শীতকালীন সবজি বিতরণ করবে হেলেন কেলার ইন্টারন্যাশনাল। সেই সাথে খাদ্যের পুষ্টিগুণ নিয়েও সচেতনতা বাড়ানো হবে। বিতরণ অনুষ্ঠানে অতিথিরা বলেন,আমাদের দেশ কৃষি প্রধান দেশ,এই দেশের মাটি খুবই উর্বর,এই দেশের কৃষক বর্তমানে আধুনিক পদ্ধতি কৃষি কাজ করার ফলে পুর্বের তুলনায় বর্তমানে অনেক অনেক ফলন বৃদ্ধি পেয়েছে,সরকার কৃষকদের জন্য আলাদা বাজেট বরাদ্ধ রাখে বাজেট ঘোষনা করার সময়,প্রাকৃতিক দুর্যোগে কৃষকের ফসল নষ্ট হলে সেখানে সরকার ভরতুকি ও ক্ষতিপুরণ দিয়ে কৃষকদের সাহায্য সহযোগিতা করছে। বর্তমানে সরকারী বেসরকারী ভাবে কৃষকদের বিভিন্ন আধুনিক যন্ত্রপাতি ও বীজ দিয়ে কৃষি কাজে সাহায্য সহযোগিতা করা হচ্ছে,আর কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ কৃষকদেরকে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে উৎপাদন ও ফলন বেশী হওয়ার পদ্ধতি এবং ভাল পরামর্শ দিয়ে যাছে। আসুন আমরা সকলে কৃষকদের উন্নয়নে আরো নতুন নতুন পদ্ধতি উদ্ভাবন করি আমাদের দেশের ফসল ও ফলন উৎপাদন করে খাদ্য ঘাটতি দুর করি।

ট্যাগ :

আরো সংবাদ

ফেইসবুকে আমরা



আর্কাইভ
December 2022
M T W T F S S
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
27282930  
আলোচিত খবর

error: কি ব্যাপার মামা !!