আজকে ২৪ এপ্রিল, ২০১৯ | | সময়ঃ-০৬:৩৭ অপরাহ্ন    

Home » থানচি

থানচি

বান্দরবানে ১১ প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল

নিউজ ডেস্কঃ- বান্দরবানে ১১ ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোননয়ন বাতিল হয়েছে। এর মধ্যে পুরুষ ভাইস-চেয়ারম্যান ৬ জন, নারী ভাইস-চেয়ারম্যান ৫ জন রয়েছেন।

বুধবার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে রিটার্নিং অফিসার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আবুল কালাম ও অপর রিটার্নিং অফিসার জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা রেজাউল করিম প্রার্থীদের মনোনয়ন যাচাই-বাছাই করেন।

বান্দরবান সদর ও রোয়াংছড়ি উপজেলায় কোনো প্রার্থীরই মনোনয়ন বাতিল হয়নি। তবে রুমা উপজেলায় স্বতন্ত্র পুরুষ ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থী সিংসা থোয়াই মারমা ও ভারত চন্দ্র ত্রিপুরা এবং আওয়ামী লীগ সমর্থিত নারী ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থী নুমরাউ মারমা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আরতি ত্রিপুরার মনোনয়ন বাতিল হয়েছে।
থানছি উপজেলায় জনসংহতি সমিতির স্বতন্ত্র পুরুষ ভাইস-চেয়ারম্যান প্রুসি অং মারমা ও একই সংগঠনের সমর্থিত স্বতন্ত্র নারী ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থী হাবেরুং ত্রিপুরার মনোনয়ন বাতিল হয়েছে।

অলীকদম উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত পুরুষ ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থী রাংক্লান ম্রোর মনোনয়ন বাতিল হয়েছে।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মো. রেজাউল করিম জানান, স্বতন্ত্র প্রার্থীদের স্বাক্ষরে গরমিল, হলফনামা ও মনোনয়নপত্রে স্বাক্ষর না থাকায় মনোনয়নগুলো বাতিল করা হয়েছে। তবে প্রার্থীরা আপিল করতে পারবেন।

উপজেলা নির্বাচনে দলের মনোনীত প্রার্থীর বিজয় সুনিশ্চিত করতে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে- ক্য শৈ হ্লা

নিউজ ডেস্কঃ- বান্দরবান জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ক্য শৈ হ্লা বলেছেন ,আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে দলের মনোনীত প্রার্থীকে বিজয়ী করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

তিনি বলেন, ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সারা দেশে আওয়ামী লীগের বিজয় যেমন হয়েছে সে ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে দলের সিন্ধান্তের প্রতি মেনে নিয়ে এক যোগে কাজ করুন ।

১১ ফেব্রুয়ারী সোমবার থানছি উপজেলা সফরকালে স্থানীয় আওয়ামী লীগের আয়োজিত মত বিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তথা বর্তমান সরকারের প্রতিশ্রুতি, প্রতি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ, গ্রামকে শহর ও প্রতি ঘর থেকে একজন করে চাকুরীর ব্যবস্থা করতে কাজ করছে সরকার। সরকারের হাতকে শক্তিশালী করতে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীকে বিজয়ী করার আহ্বান জানান তিনি।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মংথোয়াইম্যা রনি মারমার সভাপতিত্বে আয়োজিত মত বিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য থোয়াইহ্লামং মারমা, রেমাক্রী চেয়ারম্যান মুইশৈথুই মারমা, তিন্দু চেয়ারম্যান মংপ্রুঅং মারমা, থানছি প্রেসক্লাবের সভাপতি ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল আলোকিত পর্বত এর সম্পাদক অনুপম মারমা, সিনিয়র সভাপতি স্বপন কুমার বিশ^াস, সহ-সভাপতি উবামং মারমা, জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য অংপ্রু ¤্রাে, সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা ভাইসচেয়ারম্যান অলসেন ত্রিপুরা, মোহাম্মদ মোহসিন মিঞা, সাবেক রেমাক্রী চেয়ারম্যান মালিরাং ত্রিপুরা, কৃষক লীগের সবাপতি শৈসাচিং মারমা, যুব লীগের সভাপতি সচিন ত্রিপুরা, মহিলা আঃ লীগের সভানেত্রী ডলিচিং মারমা প্রমূখ ।

এর আগে সকাল ১০টায় থানছি কলেজের একাডেমি ভবন নির্মাণে কলেজ পরিচালণা পর্ষদের সাথে ভূমি মালিকের মধ্যে চলা দীর্ঘদিনের বিরোধ নিষ্পতি করে দেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা।

পঞ্চাশ শয্যায় উন্নীত হচ্ছে দূর্গম থানছি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

সিএইচটি টাইমস,বান্দরবান:-  একত্রিশ শয্যার থানছি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে পঞ্চাশ শয্যায় উন্নীত করা হচ্ছে। প্রায় ১৫ কোটি টাকা ব্যয়ে স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে। শুক্রবার (৮ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ৫০ শয্যার থানছি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করেন।

এ সময় তার সাথে স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক ড.গোফরান ফারুকী,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ কামরুজ্জামান,পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ক্যসাপ্রু ,সিভিল সার্জন ডা. অং সুই প্রু মারমা, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কাজল কান্তি দাশ, থানছি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুল হক মৃদুলসহ স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তরা উপস্থিত ছিলেন।

১৯৯৫ সালে নির্মিত হয় থানছি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স আর ১৯৯৮ সালে ৩১ শয্যা নিয়ে চালু হয় এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেটি। আর আজ ৫০ শয্যার ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের মাধ্যমে স্বাস্থ্য সেবার মান একধাপ এগিয়ে গেল। দুর্গম থানছি উপজেলার মানুষের উন্নত চিকিৎসা ব্যবস্থায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে এই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।

এ উপলক্ষে হাসপাতাল চত্ত্বরে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সভায় পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং বলেন, চিকিৎসা ব্যবস্থায় আওয়ামীলীগ সরকারের আমলে ব্যাপক উন্নতি সাধিত হয়েছে। বান্দরবানে নতুন নতুন কমিউনিটি ক্লিনিক ছাড়াও নার্সিং ট্রেনিং ইনস্টিটিউট হচ্ছে। জেলা হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলো ও আধুনিকায়ন করা হচ্ছে। দুর্গম এলাকার রোগীদের জন্য নতুন অ্যাম্বুলেন্স এর ব্যবস্থা করা হয়েছে।

থানচির নির্বাচনী প্রচারনায় বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি

নিউজ ডেস্কঃ- বান্দরবান আসনে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী বীর বাহাদুর উশৈসিং এর শান্তিপূর্ণ নির্বাচনী প্রচারণা শুরু হয়েছে। সোমবার ১০ই ডিসেম্বর সকালে প্রতীক পাওয়ার পরপরই প্রচারণায় নেমে পড়েন আওয়ামী লীগ প্রার্থী বীর বাহাদুর, থানচি উপজেলার রেমাক্রী থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন তিনি।থানচি বাজার জেলা পরিষদ মার্কেটে মতবিনিময় সভায় বক্তব্যে আওয়ামী লীগ প্রার্থী বীর বাহাদুর উশেসিং বলেন, আমার জন্য আপনারা অনেক কষ্ট করেছেন, আমি আপনাদের ২৫টি বছর সেবা করার সুযোগ পেয়েছি। এবার আবার আমার জন্য আর ১টি দিন কষ্ট করেন, আমি আরো ৫ বছর আপনাদের সেবা করার সুযোগ পাব। আগামী ৩০ ডিসেম্বর ভোট কেন্দ্রে গিয়ে আপনাদের মুল্যবান ভোট নৌকা প্রতীকে দান করুন , আর দেশ সেবায় আমাকে আরেকবার সুযোগ দেন।এসময় উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টাও পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কাজল কান্তি দাশ,আওয়ামীলীগ নেতা সুব্রত দাশ ঝন্টু, রাংলাই ম্রো,মংক্যচিং চৌধুরী,জেলা আওয়ামীলীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক সাধন চন্দ্র দাশ,জেলা মহিলা লীগের সাধারন সম্পাদক তিংতিং ম্যা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মংথোয়াই ম্যা রনি, সিনিয়র সহ-সভাপতি স্বপন দাশ,সাধারন সম্পাদক থোয়াইহ্লামং মার্মা, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মংব্রোয়াচিং মার্মা অনুপম , তিন্দু ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মং প্রু অং মার্মা, সহ সভাপতি ওবামং মার্মা,সহ সভাপতি অং প্রু ম্রো,বলিপাড়া ইউনিয়নের সদর ওয়ার্ডের মেম্বার আক্তার হোসেনসহ প্রমুখ।এদিকে প্রতীক বরাদ্দের পর পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গেছে পুরো থানচি উপজেলা,উপজেলা জুঁড়ে প্রার্থীদের পক্ষে ভোট চেয়ে চলছে মাইকিং।

থানছিতে ধম্মাজেয়া বৌদ্ধ বিহারে ১৭তম দানোত্তম শুভ কঠিম চীবর দানোৎসব সম্পন্ন

চহ্লামং মারমা (চহ্লা),থানছিঃ-থানছি বলিপাড়ায় ধম্মাজেয়া বৌদ্ধবিহারে দায়ক/দায়িকাদের আয়োজনে বৌদ্ধধর্মল্বীদের শ্রেষ্ঠ দান দানোত্ত শুভ কঠিন চীবর দানোৎসব গত সোমবার যথাযথ মর্যাদা ও ধর্মীয় ভাবগম্বীর পরিবেশে পালিত হয়েছে।অনুষ্ঠানে ১ম পর্বে থাইল্যান্ড থেকে আনীত বুদ্ধমূর্তি জীবন্যাস এবং ২য় পর্বে সংঘের দানও পূজারী উদ্দেশ্যে ধর্মদেশনা দেওয়া হয়।ভগবান গৌতম বুদ্ধের অহিংস বাণী সমাজের প্রতিটি স্তরে পৌঁছে দিতে পারলে মানুষের মধ্যে হিংসা, বিদ্বেষ, লোভ, মোহ, দুঃখ, দুর্দশা থাকবে না।কঠিন চীবর দান একটি সর্বোত্তম দান, কারণ দানেতে দুর্গতি খন্ডে।
পশ্চিম বলিপাড়া ধম্মাজেয়া বৌদ্ধ বিহারে বিহারধ্যক্ষ জ্ঞানশ্রী মহাথের এর সভাপতিত্বে কঠিন চীবর দান উৎসবে প্রধান ধর্মদেশক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বলিপাড়া বৌদ্ধ বিহারে বিহারঅধ্যক্ষ। এতে উপস্থিত ছিলেন থানছি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যহ্লাচিং মারমা,৪নং বলিপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান জিয়াঅং মারমা,৩৬১নং থাইক্ষ্যং মৌজা হেডম্যান মংপ্রু মারমা সহ উপস্থিত বিভিন্ন পাড়া থেকে দায়ক/দায়িকারা। এছাড়া বিভিন্ন দুরদুরান্ত এলাকা থেকে আগত বিভিন্ন বিহারের পুজনীয় ভিক্ষু সংঘরা উপস্থিত ছিলেন।

 

আরকান আর্মির জন্য পাঠানো ১২৭ বস্তা চাল জব্দ করেছে বিজিবি

সিএইচটি নিউজ ডেস্কঃ-মিয়ানমারের আরাকান রাজ্যভিত্তিক বিচ্ছিন্নতবাদী সংগঠন আরাকান আর্মির জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল সন্দেহে বান্দরবানের থানচি থেকে ১২০ বস্তা চাল জব্দ করেছে বিজিবি। রোববার বিকেলে চালগুলো ইঞ্জিনচালিত বোটে করে দুর্গম রেমাক্রী এলাকায় নিয়ে যাওয়ার সময় খবর পেয়ে বিজিবির সদস্যরা তা জব্দ করে। কোনো দাবিদার না থাকায় সোমবার চালগুলো জব্দ দেখানো হয়।

থানচি বাজারের ব্যবসায়ী দেলোয়ারের দোকানে বর্তমানে জব্দ করা চালগুলো রয়েছে। বিজিবির বলিপাড়া ব্যাটালিয়ননের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল হাবিবুল হাসান জানান, একটি ট্রাকে করে রোববার ১৯০ বস্তা চাল বান্দরবান হতে থানচিতে আসে। বিকেলেই বোটে করে চালগুলো রেমাক্রীতে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। খবর পেয়ে বিজিবি চালগুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পর ১২০ বস্তা চাল জব্দ করে। এখনো পর্যন্ত চালগুলোর কোনো দাবিদার খুঁজে পাওয়া যায়নি এবং সেগুলো জব্দ করে রাখা হয়েছে।

ওই কর্মকর্তা জানান, চালগুলো মিয়ানমারের আরাকান রাজ্যের বিচ্ছিন্নতাবাদী গ্রুপ আরকান আর্মির (এএ) জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল বলে বিজিবি সন্দেহ করছে।

এদিকে, থানচি বাজারে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, থানচি উপজেলার তিন্দু ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান মংপ্রু অং মারমা চালগুলো কিনে থানচিতে পাঠায়। এর সাথে রেমাক্রীর চেয়ারম্যান মুশথুই মারমাও সম্পৃক্ত রয়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

বিজিবির অধিনায়ক জানান, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা এর সাথে জড়িত থাকতে পারে বলে অভিযোগ রয়েছে। তবে কারা জড়িত তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

এদিকে, চাল আটকের ঘটনায় রেমাক্রী ও তিন্দু ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যানদের সাথে বেশ কয়েকবার ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাদের পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, মিয়ানমার সীমান্তবর্তী বান্দরবানের থানচি, রুমা ও আলীকদম এলাকার গভীর অরণ্যে দীর্ঘদিন থেকে আরাকান আর্মি তৎপর রয়েছে। এর আগেও বিজিবি অভিযান চালিয়ে এই আরাকান আর্মির অনেক মালামাল আটক করে। স্থানীয় লোকজন বিভিন্ন কৌশলে তাদের খাদ্যসহ অন্যান্য মালামাল পৌঁছে দেয় বলে এলাকার লোকজন জানিয়েছেন।

থানচির জীবননগরে মেঘাচল ভিউ পয়েন্ট এর উদ্বোধন

সিএইচটি টাইমস নিউজ ডেস্কঃ-জন প্রশাসন মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক বলেছেন,পার্বত্য চট্টগ্রামে বান্দরবানে থানচিতে পর্যটন শিল্প বিকাশের জন্য ব্যাপক উন্নয়ন করে যাচ্ছে সরকার এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে পার্বত্য চট্টগ্রাম সহ সারা দেশে পর্যটন শিল্প বিকাশ,যোগাযোগ, স্বাস্থ্য, পরিবেশ, পরিবহনসহ নানাবিট উন্নয়নের জন্য সরকার আন্তরিক রয়েছে।স্বাধীনতার ৪৪ বছরে যা হয়নি তা গত ২০১৪ সালে আওয়ামী লীগ সরকার একটি সফল ও উন্নয়শীল দেশের পরিনত হয়েছে।আগামিতে পার্বত্য অঞ্চল সহ গ্রম গঞ্জন হবে শহর উপস্থিত সকল সরকারি জনপ্রতিনিধিদের জনগনের দৌড় গৌরায় সরকারের উন্নয়ন গুলি জনগনের নিকট পৌছে দেয়ার অনুরোধ জানান।বান্দরবান জেলা প্রশাসন ও থানচি উপজেলা প্রশাসনে যৌথ অর্থায়নের ২০১৭ সালে থানচি বান্দরবান সড়কে জীবন নগড় নামক স্থানে পর্যটন শিল্প বিকাশের জন্য নীল দিগন্ত নামক একটি রিসোর্ট কেন্দ্র স্থাপন করা হয়।চলমান কাজের অগ্রগতি ও পরিদর্শনের জন্য প্রশাসনিক ভাবে আমন্ত্রন করা হলে আজ ১৯ জুলাই বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা বান্দরবানে থানচির জীবন নগরের নীল দিগন্ত পর্যটন কেন্দ্রের নব নির্মিত মেঘাচল ভিউ পয়েন্ট শুভ উদ্ভোধন কালে সাংবাদিকদের উপরোক্ত কথা বলেন।এসময় প্রতিমন্ত্রীর সাথে যগ্ন সচিব আজাহার ইসলাম,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সফিউল আলম, উপজেলা চেয়ারম্যান ক্যহ্লাচিং মারমা, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, ভাইস চেয়ারম্যান বকুলি মারমা, প্রেস ক্লাবের সভাপতি অনুপম মারমা ও আইন শৃংখলা বাহিনীরা উপস্থিত ছিলেন।

ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে ৩৮ বিজিবি ঈদ সামগ্রী বিতরণ

চ হ্লা (থানচি) বান্দরবানঃ-সামনে ঈদকে কেন্দ্র করে বলিবাজার ইউনিয়নে দুঃস্থ ও গরিবদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করলেন ৩৮ বিজিবি জোন বলিপাড়া।গতকাল বৃহস্পতিবার (১৫ জুন) সকালে এলাকা অতিদরিদ্র ও দুস্থদের মাঝে ৩০ টি পরিবারে হাতে ঈদ সামগ্রী তুলে দেন ৩৮ বিজিবি লেঃ কর্ণেল হাবিবুল হাসান (পিএসসি)। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন ৩নং ওয়ার্ডে সদস্য আক্তার হোসেন সহ এলাকা গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গরা।

বলিপাড়াতে যুব সমাজ উদ্যোগে ‘ ঞিঃঞারে’ মিনি ফুটবল টুর্ণামেন্ট অনুষ্ঠিত

চহ্লা (থানচি) বান্দরবানঃ-থানছি বলিপাড়াতে যুব সমাজ উদ্যোগে আয়োজিত মিনি ফুটবল টুর্ণামেন্ট উদ্ভোধনী অনুষ্ঠান গতকাল শুক্রবার (১জুন) বিকাল ৩ ঘটিকায় বলিবাজার হাই স্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে।পরিচালনায় কমিটি সভাপতি চহ্লা মারমা সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ৩৮ বিজিবি লেঃ কর্ণেল হাবিবুল হাসান (পিএসসি)।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ৩নং ওয়ার্ডে সদস্য আক্তার হোসেন,বলিবাজার উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক আব্দুল গনি,বাজার কমিটি সভাপতি নীহার বিন্দু চাকমা,সমাজ সেবক কালাম সওদাগর,দোলন ঘোষ প্রমুখ।রমজান মাসে রাশিয়া বিশ্বকাপকে কেন্দ্র করে এলাকায় পাড়াভিক্তিক ‘ঞিঃঞারে’ মিনি ফুটবল টুর্ণামেন্ট আয়োজন করা হয়েছে। এতে অংশ নিয়েছে রুমা ও থানছি উপজেলা থেকে মোট ১২টি দল অংশ নিয়ছে। থানছি উপজেলা প্রথমবারে মতন আয়োজন করা হয়েছে মিনি ফুটবল টুর্ণামেন্ট। উদ্ভোধনী খেলায় ক্রংক্ষ্যং পাড়া ১-০ গোলে পরাজিত করেছে আইলমারা পাড়াকে।
পরিচালনায় কমিটিররা জানান, এবারে মতন সর্বপ্রথম হিসেবে “ঞিঃঞারে” মিনি ফুটবল টুর্ণামেন্ট আয়োজন করেছি। ঞিঃঞারে অর্থ হচ্ছে মিলেমিশে অর্থাৎ সকল সম্প্রদায় সম্প্রীতি হিসেবে উপভোগ করার জন্য।রমজান মাসে দীর্ঘদিন ছুটিতে বিভিন্ন স্কুল,কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের জন্য একে অপরে পরিচিত লাভ করা জন্য এবং সম্প্রীতি বন্ধনে জন্য এ খেলায় মূল উদ্দেশ্য।এছাড়া সার্বিকভাবে সহযোগীতায় করেছেন ৩৮ বিজিবি।

থানছিতে বাজার সেড উদ্ভোধন ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করলেন-(বীর বাহাদুর (উশৈসিং) এমপি)

চহ্লা (থানচি) বান্দরবানঃ-বান্দরবানে থানছিতে ম্যান পাওয়ার ডেভলপমেন্ট প্রোগ্রাম(এমডিপি) ও থানচি উপজেলা অাওয়ালীগ এর উদ্যোগে থানছি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে গত বৃহস্পতিবার সকালে শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরন, বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত অাত্মজীবনী,বেকার মহিলাদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন,দুঃস্ত-গরিবদের মাঝে ঢেউটিন বিতরন,গাছের চারা রোপন,সাঙ্গু নদীতে মৎস্য পোনা অবমুক্তকরন,থানছি বাজার সেড ও মার্কেট ভিক্তিপ্রস্তর উদ্ভোধন করলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ে প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর (উশৈসিং) এমপি।থানছি উপজেলা আওয়ামীলি সভাপতি মংথোয়াইম্যা মারমা (রনি)’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ে প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর (উশৈসিং)এমপি,বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ৩৮ বিজিবি জোন কমান্ডিং অফিসার হাবিবুল হাসান (পিএসসি),বান্দরবান জেলা এডিসি জেনারেল শফিউল অালম,বান্দরবানে এডিশনাল এসপি ইয়াসির অারাফাত,জেলা পরিষদে সদস্য ক্যসাপ্রু মারমা,লক্ষীপদ দাস,থোয়াইহ্লামং মারমা,উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহাঙ্গীর আলম,থানা ভারপ্রাপ্ত কর্কর্তা আব্দু সাত্তার ভূইয়া, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বকুলী মারমা প্রমুখ। এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃদ্বরা।বর্তমানে সরকার উন্নয়নে সরকার,বর্তমানে সরকার শিক্ষা অবকাঠামো থেকে শুরু করে রাস্তাঘাট সহ সব দিকে অগ্রদূর।৯২ সালে থানছি আর বর্তমানে থানছি কতটুকু উন্নয়ন সবকিছু বর্তমান সরকারে প্রধান জাতির পিতা কন্যা শেখ হাসিনা সরকারে অবদান। উপরোক্ত কথাগুলো বললেন উপস্থিত বক্তারা।